রামপালে বিদ্যুৎকেন্দ্র হলে সুন্দরবনের গল্প শেষ: আনু মুহাম্মদ

অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষক। তিনি শিক্ষাদানের মাধ্যমে জাতি গঠনে বিশেষ ভূমিকা পালন করে আসছেন। তিনি একজন শিক্ষাবিদ হিসেবে, একজন সচেতন নাগরিক হিসেবে দেশের যেকোনো সংকট মুহূর্তে সজাগ কণ্ঠস্বর হিসেবে অবতীর্ণ হন। তেল-গ্যাস-খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা কমিটির সদস‌্য সচিব হিসেবে এই আন্দোলনের নেতৃত্ব দিচ্ছেন অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ। রামপালে কয়লা ভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র ও জাতীয় কমিটির নানা বিষয়-আশয় নিয়ে জানতে আনু মুহাম্মদের মুখোমুখি হয়েছেন পরিবর্তন ডটকমের নিজস্ব প্রতিবেদক…বিস্তারিত

Rampal thermal plant will destroy the Sundarbans: Prof Anu Muhammad

Locally known as Rampal power project, a joint venture between India and Bangladesh, it has created tremendous resentment in the affected areas. In a chat with Nidheesh J. Villatt, Professor Muhammad says the project will destroy the Sundarbans. He says Indian and Bangladeshi big business would make a huge profit at the cost of the camaraderie between the people of two countries. Nidheesh J. Villatt: Why are the people of Bangladesh vehemently…বিস্তারিত

Risk of losing Sundarbans

Risk of losing Sundarbans

Prof Anu Muhammad says it's no problem if proper site chosen for power plant, suggests exploring alternatives to coalSundarbans, a magnificent and unique ecosystem of the world, faces an existential question today with a coal power plant to be set up at Rampal. It has been a content of discord between environmentalists and those who are pushing the plant. Both sides are giving out their own arguments in favour of…

বিস্তারিত

'প্রধানমন্ত্রীর এক হাতে পরিবেশ রক্ষার পদক, অন্য হাতে সুন্দরবন বিনাশের পরোয়ানা'

[অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ। অর্থনীতিবিদ ও জাতীয় সম্পদ রক্ষা আন্দোলনের অন্যতম নেতা। সম্প্রতি এই কমিটির উদ্যোগে অনুষ্ঠিত হলো সুন্দরবন রক্ষা ও সাত দফা দাবিতে ঢাকাসহ সারা দেশ থেকে সুন্দরবন অভিমুখে জনযাত্রা। এবারের জনযাত্রাকে কেন্দ্র করে তার মুখোমুখি হই। ব্যাখ্যা করেছেন এই আন্দোলন এগুনোর প্রতিবন্ধকতা কী, আর আশার আলোটাই বা কোথায়! সুন্দরবনের বর্তমান পরিস্থিতি, বিদ্যুৎ কেন্দ্রের প্রভাব থেকে শুরু করে আন্দোলনের অগ্রগতি ও গণমাধ্যমের ভূমিকা, সরকারপক্ষের বক্তব্যের সারমর্ম নিরূপণ এবং মহাপ্রাণ সুন্দরবনকে…বিস্তারিত

আমাদের অর্থনীতির বড় একটি অংশ নিয়ন্ত্রণ করে দুর্নীতি

আমাদের অর্থনীতির বড় একটি অংশ নিয়ন্ত্রণ করে দুর্নীতিআনু মুহাম্মদ, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতির অধ্যাপক। তেল-গ্যাস-খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির সদস্য সচিবও তিনি। গতকাল অতিথি হয়ে এসেছিলেন বণিক বার্তা কার্যালয়ে। কথা বলেন উন্নয়ন, পরিবেশ, দুর্নীতিসহ অর্থনীতির নানা বিষয় নিয়েআমাদের অর্থনীতির একটি বড় অংশ নিয়ন্ত্রণ করে দুর্নীতি। বর্তমানে জিডিপি প্রবৃদ্ধির হার বাড়ানোর ক্ষেত্রে দুর্নীতি বড় ভূমিকা রাখছে। কারণ দুর্নীতি খরচের সঙ্গে সম্পৃক্ত। খরচ যত বাড়বে, জিডিপি প্রবৃদ্ধির হার তত বেশি হবে। বর্তমান অবস্থায় দুর্নীতি কমলে জিডিপি বাড়বে— এ…বিস্তারিত

আন্দোলন কখনো ব্যর্থ হয় না

আন্দোলন কখনো ব্যর্থ হয় না[গণবিরোধী যেকোনো চক্রান্তের বিপক্ষে সরব জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ। তাঁর জীবন ও সংগ্রামের গল্প শুনেছেন পিন্টু রঞ্জন অর্ক। ছবি তুলেছেন কাকলী প্রধান।  সাক্ষাতকার গ্রহণঃ ২০ ডিসেম্বর ২০১৫, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়। প্রকাশঃ ৮ জানুয়ারি ২০১৫, কালের কন্ঠ]কোথায় জন্মেছিলেন?জন্ম জামালপুরে, নানাবাড়ির উঠানের আঁতুড়ঘরে। জন্মের দু-তিন বছর পর থেকে ঢাকায় বসবাস। বাবা (মোহাম্মদ আজগর আলী) তখন কলেজ শিক্ষক। প্রথম বাসা ছিল কমলাপুর। রেলওয়ে স্টেশন হওয়ার পর খিলগাঁওয়ে চলে আসি। তার পর থেকে…বিস্তারিত

নদীনালা, খালবিল দখল ও ধ্বংসের মাধ্যমেও জি ডি পি বাড়তে পারে

নদীনালা, খালবিল দখল ও ধ্বংসের মাধ্যমেও জি ডি পি বাড়তে পারে

সাক্ষাৎকার গ্রহণ- সনতোষ বড়ুয়ান, ০১ আগস্ট ২০১৫, ওয়াশিংটন ডি সি।  প্রশ্ন- সম্প্রতি দেশে যে বিষয়টা নিয়ে খুব আলোচনা চলছে সেটা হল বাংলাদেশ নিন্ম আয়ের দেশ থেকে নিন্ম মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হয়েছে। একথা জানিয়েছে বিশ্ব ব্যাংক। এ বিষয়ে আপনার কী মতামত? এতে আমাদের লাভ ক্ষতিই বা কী?আনু মুহাম্মদ- বিশ্বব্যাংক সারা বিশ্বের বিভিন্ন দেশকে মাথাপিছু আয়ের ভিত্তিতে তিনটি প্রধান ভাগে ভাগ করে থাকে।এগুলো হল:১। নিম্ন আয়ভুক্ত দেশ (মাথাপিছু ১ হাজার মার্কিন…

বিস্তারিত

ভারতীয় পুঁজির আত্মসম্প্রসারণের ক্ষুধা তৈরি হয়েছে

ভারতীয় পুঁজির আত্মসম্প্রসারণের ক্ষুধা তৈরি হয়েছে[অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতির শিক্ষক। দেশের অর্থনীতি, রাজনীতি, সংস্কৃতি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে লেখালেখি করছেন। দেশের প্রাকৃতিক সম্পদ রক্ষা আন্দোলনের কেন্দ্রীয় ব্যক্তিত্ব। বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ওপর বাজেটে প্রস্তাবিত মূসক, পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের বেতনের গ্রেড অবনমন, কানেকটিভিটি চুক্তি, বিদেশি বিনিয়োগ নিয়ে কথা বলেছেন দৈনিক আলোকিত বাংলাদেশের সঙ্গে। সাক্ষাৎকারটি নিয়েছেন শানজিদ অর্ণব]প্রশ্ন : ২০১৫-১৬ অর্থবছরের বাজেটে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়, মেডিকেল কলেজ এবং ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজের ওপর ১০ শতাংশ মূল্য সংযোজন কর আরোপের প্রস্তাব করা…বিস্তারিত

সিটি করপোরেশনের মেয়রের ক্ষমতা খুবই সীমিত

আলোকিত বাংলাদেশ : চলতি অর্থবছরে জিডিপি প্রবৃদ্ধির সম্ভাব্য হার নিয়ে এক ধরনের বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে। বিশ্বব্যাংক বলেছে, চলতি অর্থবছরে বাংলাদেশ ৫ দশমিক ৬ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অর্জন করতে পারে। কিন্তু অর্থমন্ত্রী বলেছেন, প্রবৃদ্ধির হার ৭ শতাংশের কাছাকাছি হবে। আসলে জিডিপি প্রবৃদ্ধির হার কত হতে পারে বলে আপনি মনে করেন?আনু মুহাম্মদ : জিডিপির হিসাবটা নির্ভর করে একটি দেশের অভ্যন্তরীণ অর্থনীতির মধ্যে উৎপাদন ও কেনাবেচা কতটা বৃদ্ধি পাচ্ছে তার ওপর। জিডিপির সামগ্রিক তথ্যের…বিস্তারিত

দমন-পীড়ন, চোরাগোপ্তা হামলা দুটিই অগণতান্ত্রিক

দমন-পীড়ন, চোরাগোপ্তা হামলা দুটিই অগণতান্ত্রিকআলোকিত বাংলাদেশ : বর্তমানে চলমান সংঘাতময় রাজনৈতিক পরিস্থিতির জন্য সরকারি দল এবং সংসদের বাইরে থাকা বিরোধী বৃহৎ রাজনৈতিক দল দুটি একে অপরকে দায়ী করছে। আপনার মতে এ পরিস্থিতির কারণ কী এবং কারা এজন্য দায়ী?আনু মুহাম্মদ :যে কোনো সময় কোনো পরিস্থিতির জন্য অর্থাৎ ভালো কিছু হলে তার কৃতিত্ব আবার খারাপ কিছু হলে তার দায়িত্ব ক্ষমতাসীনদের ওপরই বর্তায়। সুতরাং সে হিসেবে বর্তমান পরিস্থিতির প্রধান দায়িত্ব সরকারের। এ পরিস্থিতির ক্ষেত্র তৈরিতে বিরোধী দল…বিস্তারিত

Page 1 of 3