লড়াই–সংগ্রামে মাঠে থাকা মানুষটি

লড়াই–সংগ্রামে মাঠে থাকা মানুষটি আজ ৩১ জুলাই প্রকৌশলী শেখ মুহম্মদ শহীদুল্লাহর ৮৫ বছর পূর্ণ হলো। তিন দিন আগে ২৮ জুলাই তিনি ‘রামপাল চুক্তি ছুড়ে ফেলো, সুন্দরবন রক্ষা করো’ দাবি নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় অভিমুখে বিক্ষোভ মিছিলপূর্ব সমাবেশে সহস্রাধিক মানুষের সঙ্গে দাঁড়িয়েছিলেন। মিছিল উদ্বোধন করতে গিয়ে বললেন, ‘ছোটবেলায় মায়ের কাছে শুনতাম, জঙ্গলেই মঙ্গল। বড় হয়ে বুঝি এটা কত বড় সত্য। সুন্দরবন আমাদের মায়ের মতোই আশ্রয়। এটা আমরা যদি রক্ষা করতে না পারি ভবিষ্যৎ বাংলাদেশ আমাদের ক্ষমা…বিস্তারিত

বিশ্বাস-অবিশ্বাসের সীমা

বিশ্বাস-অবিশ্বাসের সীমা
প্রশ্নহীন আনুগত্য, পরম বিশ্বাস বা কারও ওপর পুরোপুরি ভর করে থাকা অনেক আরামদায়ক। বিশ্বাস ভরসা দেয়, আশ্রয় দেয়। অনেক উদ্বেগ থেকে বাঁচায়। নিরাপত্তা আর নিশ্চয়তার বোধ এনে দেয়। মানুষের এই বিশ্বাস ধর্মবিশ্বাস থেকে শুরু করে সরকার, নেতা, মা-বাবা, শিক্ষক, কোম্পানি, মিডিয়া, বস পর্যন্ত বিস্তৃত হতে পারে। শিশুরা যে নিশ্চিন্ত নিরুদ্বেগ থাকতে পারে, তার বড় কারণ তাদের কাছে দুনিয়ার অনেক তথ্য থাকে না, তা ছাড়া তারা পূর্ণ বিশ্বাস নিয়ে মা-বাবার আশ্রয়ে…
বিস্তারিত

ট্রানজিট ও কাঁটাতারের বন্ধুত্ব

ট্রানজিট ও কাঁটাতারের বন্ধুত্বসম্প্রতি একটি গবেষণাপত্রে দেখানো হয়েছে- নয়াদিল্লি থেকে ঢাকায় ২০ ফুট একটি কনটেইনার সমুদ্রপথে নিয়ে যেতে (মুম্বাই, সিঙ্গাপুর অথবা কলম্বো হয়ে চট্টগ্রাম এবং পরে ট্রেনে ঢাকা) সময় লাগে ৩০ থেকে ৪০ দিন এবং খরচ লাগে ২৫০০ মার্কিন ডলার। এটি যদি সরাসরি দিল্লি থেকে ট্রেনে পরিবহন করা হয়, সময় লাগবে চার-পাঁচ দিন, খরচ হবে তিন ভাগের এক ভাগ, ৮৫০ মার্কিন ডলার। এছাড়া বাংলাদেশের মধ্য দিয়ে পণ্য পরিবহন করলে আগরতলা থেকে কলকাতা বা…বিস্তারিত

সাগরচুরি থেকে বনবিনাশ

সাগরচুরি থেকে বনবিনাশবাজেট নিয়ে আলোচনায় মানুষের মনোযোগ এবার অনেক কম, বেশি হওয়ার কোনো যুক্তিও নেই। তা ছাড়া সন্ত্রাস, পাইকারি ধরপাকড়, দ্রব্যমূল্য, রোজা ইত্যাদি বিষয় উদ্বিগ্ন, ক্লান্ত মানুষের মনোযোগ অনেকখানি নিয়ে নিচ্ছে। বাজেট আসার আগেই বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম এ নিয়ে অনেক আলোচনার পরিবেশ তৈরি করতে চেষ্টা করে। অর্থমন্ত্রী সংগঠিত কিছু গোষ্ঠীর সঙ্গে বৈঠকে বসেন, তাদের মধ্যে প্রধানত অর্থনীতিবিদ ও বিভিন্ন ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান থাকে। তবে শ্রমিক, কৃষক, খেতমজুর, নারী, শিক্ষার্থী, শিক্ষক, প্রবাসীদের প্রতিনিধিদের সঙ্গে বসার বা…বিস্তারিত

ভারতের উন্নয়ন যাত্রায় বাংলাদেশ

ভারতের উন্নয়ন যাত্রায় বাংলাদেশ
‘কাঁটাতারে ঘেরা কেন, বন্ধু ভারত যদি বন হত মানুষ হত আরও হত নদী?’
বারবার জিজ্ঞাসা করেও এ সহজ প্রশ্নটির উত্তর আমরা এখনো পাচ্ছি না। উত্তর না পেলেও কাজ কিন্তু থেমে নেই।
১৫ মে ২০১৬ থেকে ‘ট্রানজিট’ নামে ভারতের পণ্যসামগ্রী বাংলাদেশের মধ্য দিয়ে আবার ভারতেই নেয়ার আনুষ্ঠানিক ব্যবস্থা শুরু হয়েছে। পৃথিবীতে এ রকম দৃষ্টান্ত পাওয়া কঠিন হলেও এর আগে বাংলাদেশ অনেকবার ‘শুভেচ্ছাস্বরূপ’, ‘মানবিক’ কারণে ভারতীয় পণ্য পরিবহনের অনুমতি দিয়েছে। তিতাস নদীতে আড়াআড়ি…
বিস্তারিত

বাজেটে সাধারণ মানুষ কতটা লাভবান হবে?

আজ ২০১৬-১৭ অর্থবছরের বাজেট উপস্থাপিত হচ্ছে। বাজেটের সময় হয়েছে—তা জনগণ বুঝতে পারে তাদের প্রাত্যহিক জীবনের তিক্ত অভিজ্ঞতার মধ্য দিয়ে। বাজেটের সময় ঘনিয়ে এলেই জিনিসপত্রের দাম বাড়ার খবর আসতে থাকে, নতুন নতুন করের খবরে এই দাম বাড়ে। বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে বাজেট শেষ করার তাড়াহুড়ায় অপচয় হয়, বাজার চাঙা হয়। অর্থবছরের শেষ মাস জুন থাকায় এই সময়ে বৃষ্টি হয়, খানাখন্দে ভরা শহরে পানি জমে, তাড়াহুড়া করে সব প্রকল্প শেষ করতে অপচয় ও দুর্নীতির…বিস্তারিত

বাঁধ, দখল ও ‘উন্নয়ন’ নদী খুনের তিন ধারা

বাঁধ, দখল ও ‘উন্নয়ন’ নদী খুনের তিন ধারাআজ ১৬ মে ফারাক্কা দিবস। ৪০ বছর আগে এই দিনে মওলানা ভাসানী ‘মরণ বাঁধ ফারাক্কা’-র বিরুদ্ধে এক বিশাল জনযাত্রা কর্মসূচি নিয়েছিলেন। ফারাক্কার অভিমুখে ডাকা লংমার্চে অসংখ্য মানুষ অংশ নিয়েছিলেন। ফারাক্কা বাঁধ দিয়ে ভারতের যে নদীবিধ্বংসী উন্নয়ন যাত্রা শুরু তা গত ৪০ বছরে এমনস্থানে পৌঁছেছে যে, বাংলাদেশের বৃহত্ নদী পদ্মা ও সম্পর্কিত অসংখ্য ছোট নদী খালবিলও এখন বিপর্যস্ত। ফারাক্কা বাঁধের কারণে পদ্মা নদীর বড় অংশ এখন শুকিয়ে গেছে। ভারসাম্যহীন পানি প্রবাহে…বিস্তারিত

সন্ত্রাস দমন, না সন্ত্রাস বপন?

বাংলাদেশ সফরে এসে ভারতের পররাষ্ট্র সচিব আবারও বাংলাদেশের সঙ্গে যৌথভাবে সন্ত্রাস দমনের কাজ করার অঙ্গীকার করেছেন। এর মধ্যে সন্ত্রাস দমনে ভারত যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আরও চুক্তি করেছে। যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে এ বিষয়ে বাংলাদেশেরও চুক্তি আছে। পাকিস্তানও যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সন্ত্রাস দমন কাজে নানা চুক্তি ও সমঝোতায় কাজ করছে। সম্প্রতি সৌদি আরব সন্ত্রাস দমনে জোট করেছে, তার মধ্যেও বাংলাদেশ আছে। রাষ্ট্রীয় পর্যায়ে সবাই ‘সন্ত্রাস দমনে’ ঐক্যবদ্ধ, প্রশ্ন হল তাহলে সন্ত্রাস করছে কে? সন্ত্রাসী কারা?…বিস্তারিত

বাঁশখালীতে জোরজুলুম কেন?

বাঁশখালীতে জোরজুলুম কেন?গত ৪ এপ্রিল চট্টগ্রামের বাঁশখালীর গণ্ডামারায় চারজন নিরীহ গ্রামবাসী নিহত হয়েছেন। এক মাস পার হলেও সরকারি প্রশাসন এর কোনো কূলকিনারা করার বা দায়ী ব্যক্তিদের চিহ্নিত করার ব্যবস্থা করেনি। এ ব্যাপারে সরকার গঠিত তদন্ত কমিটির রিপোর্টও জনগণের কাছে বিশ্বাসযোগ্য মনে হয়নি। সেদিনের ঘটনা নিয়ে অনেক বিভ্রান্তি ছড়ানো হয়েছে। কারা নিহত হয়েছিলেন তাঁদের নামও হয়তো দেশবাসী জানে না। কেননা, খুব কম সংবাদমাধ্যমেই তাঁদের কথা এসেছিল। সবার অবগতির জন্য এখানে নিহত ব্যক্তিদের নাম-পরিচয়…বিস্তারিত

জাতীয় ন্যূনতম মজুরি ও নিরাপত্তা চাই

জাতীয় ন্যূনতম মজুরি ও নিরাপত্তা চাই‘সবার জন্য প্রযোজ্য জাতীয় ন্যূনতম মজুরি এবং নিরাপদে কাজের অধিকার’—এই দাবি হওয়া উচিত আমাদের সবার। মে দিবসের সঙ্গে এই দাবি অবিচ্ছেদ্য। দেশের প্রতিটি নাগরিক কাজ করে নিরাপদে বাঁচার অধিকার নিয়েই জন্মগ্রহণ করে। একটি ন্যূনতম আয়সীমা নিশ্চিত করার দায়িত্ব সরকারের। জাতীয় ন্যূনতম মজুরি হচ্ছে ঘণ্টা, দিন, সপ্তাহ বা মাস ভিত্তিতে এ রকম মজুরি, যার নিচে দেশের কোথাও কোনো কাজে, কোনো মজুরি বা বেতন হতে পারবে না। যেকোনো কাজের ক্ষেত্রে এই শর্ত…বিস্তারিত

Page 8 of 25