সুন্দরবন-বিনাশী প্রকল্প দিয়ে উন্নয়ন হয় না

সুন্দরবন-বিনাশী প্রকল্প দিয়ে উন্নয়ন হয় নাগত ১৩ তারিখ থেকে তেল গ্যাস খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুত্বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির শরীক দলগুলো দুইভাগে সুন্দরবন রক্ষায় দুটো কর্মসূচি গ্রহণ করেছিলো। ১৩ অক্টোবর থেকে ১৭ অক্টোবর সিপিবি-বাসদ এবং ১৬ অক্টোবর থেকে ১৮ অক্টোবর গণতান্ত্রিক বাম মোর্চাভুক্ত দলগুলো সুন্দরবন রক্ষায় রামপাল কয়লা ভিত্তিক বিদ্যুত্ প্রকল্প বাতিলের দাবিতে সুন্দরবন অভিমুখে অভিযাত্রা ও রোডমার্চ কর্মসূচি নেয়। ১৬ অক্টোবর বামমোর্চা কর্মসূচির অংশ হিসেবে পাঁচ শতাধিক নেতা-কর্মীসহ মানিকগঞ্জে প্রবেশ করে। সেখানে নির্ধারিত কর্মসূচি অনুযায়ী…বিস্তারিত

কে কার বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে?

কে কার বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে?বিশ্বের বহু দেশ থেকে সৌদি আরবে হজ করতে গিয়েছেন মানুষ। সেখানে পদদলিত হয়ে কতজন নিহত হয়েছেন, তার সঠিক পরিসংখ্যান এখনো পাওয়া যায়নি। আদৌ পাওয়া যাবে কি না, সন্দেহ। কেননা, এ বিষয়ে খুব কম জনই মুখ খুলছেন। বিশ্বের প্রধান প্রধান সংবাদমাধ্যমও এ বিষয়ে কোনো অনুসন্ধানী রিপোর্ট করছে না। সৌদি রাজতন্ত্র সব সময়ই এই সুবিধা পেয়ে থাকে। তবে ইরান ব্যতিক্রম। ইরান দাবি করছে, মৃত্যুসংখ্যা আরও অনেক বেশি। তাদের দাবি, সৌদি রাজপুত্রের গাড়ির…বিস্তারিত

শিক্ষার মালিকানা ও ভ্যাট প্রসঙ্গ

শিক্ষার মালিকানা ও ভ্যাট প্রসঙ্গঅবশেষে সরকার প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের অসাধারণ ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের কাছে নতিস্বীকার করে তাদের ওপর আরোপিত ভ্যাট প্রত্যাহার করেছে। নিজেদের সমৃদ্ধ করে শিক্ষার্থীরা ক্লাসে ফিরে গেছে, রেখে গেছে নিজেদের ও সমাজের জন্য দীর্ঘমেয়াদি প্রভাব। সন্দেহ নেই, এ আন্দোলনের মধ্য দিয়ে সমাজের মধ্যে শিক্ষা সম্পর্কিত সরকারি দৃষ্টিভঙ্গি, শিক্ষার বাণিজ্যিকীকরণ নিয়ে মনোযোগ বেড়েছে। শিক্ষা যে পণ্য নয়, এর ওপর যে কর বা শুল্ক আরোপ করা যায় না, শিক্ষার যেকোনো ব্যক্তি বা গোষ্ঠী মালিক থাকতে…বিস্তারিত

বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের বেতন ও জবাবদিহি

জাতীয় বেতন স্কেল মন্ত্রিসভায় অনুমোদিত হলেও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের উত্থাপিত দাবিদাওয়ার নিষ্পত্তি এখনো হয়নি। বহু বছর পরে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের বেতন নিয়ে আন্দোলন জাতীয়ভাবে সংগঠিত আকারে দাঁড়িয়েছে। এই আন্দোলনে সরকারপন্থী শিক্ষকদের গ্রুপগুলোও যুক্ত আছে, এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্য বহু আন্দোলনে হলেও, এখন পর্যন্ত কোথাও এ ক্ষেত্রে সরকারি ছাত্রসংগঠনের কোনো হামলা দেখা যায়নি। তাতে আশা করা যায় যে শান্তিপূর্ণভাবেই এই আন্দোলন অগ্রসর হতে পারবে।এর আগে বেতন নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের জাতীয়ভিত্তিক বড় আন্দোলন হয়েছিল ১৯৮৬-৮৭…বিস্তারিত

জনগণের ওপর নতুন বোঝা, অর্থনীতির ক্ষরণ

কদিন আগে বিবিসির উপস্থাপক খবরে গ্যাস-বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধি বিষয়ে আমার মন্তব্য প্রচারের সময় পরিচয়ে বললেন, ‘যিনি বরাবরই তেল-গ্যাস-বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির বিরোধিতা করেন।’ শুনে খটকা লাগল। সব সময় বিরোধিতা মানে তো যুক্তি-অযুক্তির বিষয় নয়, গোঁয়ার্তুমি। এটা ঠিক নয়। মূল্যবৃদ্ধি যদি যৌক্তিক হয়, যদি এর মধ্য দিয়ে অর্থনীতির শক্তি বাড়ে, তাহলে তা অবশ্যই মেনে নেওয়া উচিত।গ্যাস, তেল, বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধি আমরা মেনে নিতে পারি দুই কারণে। এক. যদি চুরি, দুর্নীতি বা জাতীয় স্বার্থবিরোধী চুক্তি ছাড়া…বিস্তারিত

ফুলবাড়ী চুক্তি: উন্নয়নের নিশানা

এ রকম প্রশ্ন আমরা প্রায়ই শুনি যে, ‘আপনারা কয়লা উত্তোলন করতে দিচ্ছেন না, গ্যাস উত্তোলন করতে দিচ্ছেন না। কয়লাভিত্তিক বিদ্যুতের বিরোধিতা করছেন, পারমাণবিক বিদ্যুতের বিরোধিতা করছেন। তাহলে বিদ্যুত্ কীভাবে হবে? উন্নয়ন কীভাবে হবে?’ একদিন এক টিভি টকশোতে আলোচনার একপর্যায়ে এক দর্শক ভদ্রলোক আমার উদ্দেশে প্রশ্নবাণ নিক্ষেপ করলেন, ‘আপনারা আসলে কী চান? আপনারা তো সবকিছুরই বিরোধিতা করেন। আপনারা টিকফার বিরোধিতা করেন, তেল-গ্যাস নিয়ে চুক্তির বিরোধিতা করেন, গ্যাস রফতানির বিরোধিতা করেন, উন্মুক্ত…বিস্তারিত

ফুলবাড়ী: অব্যাহত প্রতিরোধের শক্তি

২৬ আগষ্ট ফুলবাড়ী গণঅভ্যুত্থানের নবম বছর পূর্তি হচ্ছে। ২০০৬ সালে লক্ষ মানুষের শান্তিপূর্ণ সমাবেশে, সরকারি বাহিনীর মাধ্যমে হামলা ত্রাস চালিয়ে, গুলি করে মানুষ হত্যা করেও টিকতে পারেনি ব্রিটিশ-অস্ট্রেলিয়ান-মার্কিন কোম্পানি এশিয়া এনার্জি। গণঅভ্যুত্থানের মুখে গভীর রাতে কোম্পানির সকল কর্মকর্তা ফুলবাড়ী ছেড়ে পালিয়েছিলো তখন। এই কোম্পানি দেশের আবাদী জমি পানি ও মানুষের সর্বনাশ করে শতকরা মাত্র ৬ ভাগ রয়্যালটি দিয়ে দেশের কয়লা বিদেশে পাচার করতে চেয়েছিলো। ২৬ আগষ্ট তার প্রতিবাদে আহুত শান্তিপূর্ণ…বিস্তারিত

প্রকৌশলী শেখ মুহম্মদ শহীদুল্লাহঃ আজীবন সংগ্রামী অসাধারণ মানুষ

প্রকৌশলী শেখ মুহম্মদ শহীদুল্লাহঃ আজীবন সংগ্রামী অসাধারণ মানুষ৩১ জুলাই প্রকৌশলী শেখ মুহম্মদ শহীদুল্লাহর ৮৪তম জন্মবার্ষিকী। শহীদুল্লাহ ভাই সম্পর্কে আমি কথা বলতে গেলে গত ১৭ বছরে গড়ে ওঠা জাতীয় কমিটির আন্দোলন আর তা ছড়িয়ে পড়ার বিষয়গুলোই নানাভাবে আসতে থাকবে। কারণ এই আন্দোলনের সূত্রেই তাঁর সঙ্গে আমার পরিচয়। আর এই আন্দোলনের নানা বিষয় নিয়ে অধ্যয়ন, অনুসন্ধান, গবেষণা, লেখালেখি, বিতর্ক; লিফলেট, বুকলেট, পোষ্টার, বুলেটিন; এই আন্দোলনের নানাপর্বে মিছিল, লংমার্চ, ঘেরাও, শ্লোগান; সারাদেশের নানাপ্রান্ত সফর, পুলিশ- সন্ত্রাসী-মন্ত্রী-ভাড়াটে গবেষক মোকাবিলা; ব্যক্তি গ্রুপ…বিস্তারিত

গ্রিসের যুদ্ধ ও ট্রয়কা

গ্রিসের যুদ্ধ ও ট্রয়কা
গ্রিসের মানুষ এখন যুদ্ধের অনুভূতি নিয়ে রাস্তায়। মিছিল হচ্ছে, লেখা হচ্ছে, গান হচ্ছে, নাটক-কার্টুন, তাত্ত্বিক বোঝাপড়া। রাস্তায় রাস্তায় স্বেচ্ছাসেবকদের বিভিন্ন গ্রুপ দিন-রাত কাজ করছে। লঙ্গরখানা চলছে দিন-রাত। আইএমএফ বা করপোরেট নেতারা বলেন, গ্রিকরা অলস, সে জন্য আজ এই সংকট। এখনকার গ্রিস দেখে কেউ এটা বিশ্বাস করবে না। কর্মসংস্থান নেই, উপার্জনের রাস্তা নেই, তবু বেকার তরুণদের অনেকেই দিন-রাত ব্যস্ত। ভীষণ বিপদের আশঙ্কা, আর তার বিরুদ্ধে সর্বজনের সংগঠন আর সক্রিয়তা ঘরে ঘরে,…
বিস্তারিত

নদী এবং উন্নয়ন কিংবা বিপর্যয়ের কথন

নদী এবং উন্নয়ন কিংবা বিপর্যয়ের কথনবাংলাদেশ নদী-নালা, খাল-বিল ভরা একটি দেশ। আরো সঠিক হবে বললে যে, ভরা ছিল একটি দেশ। এখন যেভাবে আছে নদী-নালা, খাল-বিল, তাতে অনেক নদ-নদীই শুকিয়ে গেছে কিংবা আধমরা হয়ে আছে। একের পর এক পাকা বাঁধ বা বন্যা নিয়ন্ত্রণ প্রকল্প আটকে দিয়েছে অনেক প্রবাহ। অনেক খাল-বিলও হয় শুকিয়ে গেছে, নতুবা যাওয়ার পথে। ডোবা জলাশয় যেগুলো আবার নানাভাবে পানিপ্রবাহের একটা গুরুত্বপূর্ণ অংশ হিসেবে কাজ করে, সেগুলোর অনেকগুলোই এখন অট্টালিকার নিচে হারিয়ে গেছে কিংবা…বিস্তারিত

Page 8 of 21