বাংলাদেশের জন্য বাড়তি সমস্যা সৃষ্টি হবে

বাংলাদেশের জন্য বাড়তি সমস্যা সৃষ্টি হবেআলোকিত বাংলাদেশ: ব্রিটেন সম্প্রতি ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন থেকে বেরিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে, এর অর্থনৈতিক কারণ কী কী?আনু মুহাম্মদ:ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন থেকে ব্রিটেনের বেরিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত বিশ্ব অর্থনীতিতে সুদূরপ্রসারী প্রভাব ফেলবে। ব্রিটেন এক সময় বিশ্বের ‘এক নম্বর শক্তি’ ছিল। ব্রিটেনের প্রভাব কমতে শুরু করে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের মধ্য দিয়ে। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বিভিন্নভাবে বিশ্ব অর্থনীতির কেন্দ্রে চলে আসে এবং ‘এক নম্বর অর্থনৈতিক শক্তি’তে পরিণত হয়। সারা পৃথিবীতে সবচেয়ে বেশি উপনিবেশ ছিল ব্রিটেনের।…বিস্তারিত

দুইদেশের বন্ধুত্বের কাঁটা : রামপাল থেকে ফারাক্কা

যা মানুষকে কঠিন বিপদের মধ্যে নিক্ষেপ করছে, যে ক্ষতিপূরণ করা কখনোই সম্ভব নয়, যে ক্ষতি বহন করা মানুষের পক্ষে দু:সাধ্য সেই ক্ষতি নিয়েও ক্ষমতাবান ব্যক্তিদের হাসিঠাট্টা মিশ্রিত ‘কোনো ক্ষতি হয়নি’ ‘কিংবা হবে না’ শুনে শুনে আমরা অভ্যস্ত। তাঁরা তাঁদের দিক থেকে যে খুব অসত্য বলছেন তাও নয়, কেননা ক্ষতি তো তাদের হয়ইনি, হবেও না কোনোদিন। তাঁরা মানুষ ও জনপদের অপরিসীম ক্ষতি করেন, লাভবান হন এবং তারপর চলে যান ধরাছোঁয়ার বাইরে।প্রথমে…বিস্তারিত

Farakka-Rampal: An impediment to Bangladesh-India relations

When powerful people dismiss any serious threat of damage, brushing it off with a scornful, “no harm will be done”, we are prone to simply accept their assertion. They are not too far from the truth. After all, no harm will be done to them. They can create immeasurable harm to places and people, gain from their actions, and then remain out of reach.Let’s first come to a dam.…বিস্তারিত

সম্পদ আছে, নেই জনপন্থী দৃষ্টিভঙ্গি

আবারও সব যুক্তি-তথ্য অস্বীকার করে গ্যাস ও (এরপর বিদ্যুতের) দামবৃদ্ধির ফাইল নিয়ে সরকার নানা কায়দা-কানুনে ব্যস্ত। যুক্তি-তথ্যে না পেরে গায়ের জোরেই দামবৃদ্ধির আয়োজন করছে। জ্বালানি ও বিদ্যুৎ খাত নিয়ে সরকারের রোডম্যাপ মনে রাখলে কারও কাছে এটা বিস্ময়কর মনে হবে না। বরং এটা পরিষ্কার হবে যে, এটাই শেষ নয়, কিছুদিন পরপরই এরকম দামবৃদ্ধির বোঝা জনগণের ঘাড়ে পড়বেই। যৌক্তিক কারণে দামবৃদ্ধি হলে বা দামবৃদ্ধির মাধ্যমে পুরো খাত উপকৃত হলে আপত্তির কিছু থাকে…বিস্তারিত

ফুলবাড়ী গণঅভ্যুত্থান প্রতিরোধের এক দশক

ফুলবাড়ী গণঅভ্যুত্থান প্রতিরোধের এক দশক
আজ ২৬ আগস্ট ঐতিহাসিক ফুলবাড়ী গণঅভ্যুত্থানের এক দশক (২০০৬-২০১৬) পূর্তি হচ্ছে। প্রতিরোধের এক দশক পূর্তিতে আমরা সালাম জানাই শহীদ তরিকুল, সালেকিন, আল আমিন; বীর যোদ্ধা বাবলু রায়, প্রদীপ, শ্রীমন বাস্কেসহ অগণিত সংগ্রামী মানুষকে। মানুষের ঐক্য ও অবিরাম প্রতিরোধ দেশকে রক্ষা করেছে, দিয়েছে নতুন দিশা। তাই ‘প্রতিরোধের এক দশক’ আমাদের উদযাপন করতে হবে তার ভেতর থেকে শক্তি সঞ্চয় করে তা বিস্তৃত করার প্রতিজ্ঞা নিয়ে।
এক দশক ধরে বিজয়ের ওপর দাঁড়িয়ে জনগণের প্রতিরোধ…
বিস্তারিত

আক্রান্ত তরুণদের কথা

আক্রান্ত তরুণদের কথা
কিছুদিন ধরে চারদিকে একটা হাহাকার। সরকার, বুদ্ধিজীবী, অভিভাবকদের মধ্য থেকে এই প্রশ্ন মাঝেমধ্যেই উঠছে, ‘কী করে আমাদের তরুণেরা জঙ্গি হয়ে যাচ্ছে?’ এর আগেও শুনেছি, ‘তরুণদের মধ্যে অবক্ষয় দেখা দিচ্ছে।’ আমার তখন একটি পাল্টা প্রশ্ন আসে মাথায়, ‘তরুণেরা যদি অন্য পথে যেতে চান, তখন আপনারা কি তা হতে দেন?’
আমাদের সন্তানদের শৈশব থেকেই অসম্ভব একটা চাপ ও তাড়ার মধ্যে থাকতে হয়। স্কুলে সিলেবাস ভারী করা হয়েছে, বইয়ের সংখ্যা বেড়েছে, নতুন…
বিস্তারিত

সুন্দরবন, জঙ্গিবাদ আর জনচৈতন্য

সুন্দরবন রক্ষার চলমান আন্দোলনের এক সমাবেশে আমি বলেছিলাম, ‘যে দেশের মানুষের সুন্দরবন রক্ষার মতো সংবেদনশীলতা বা দায়িত্ববোধ তৈরি হয় না, সে দেশে সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, সাম্প্রদায়িকতা এবং সহিংসতা থেকে মুক্ত হওয়ার কোনো সম্ভাবনা নেই। যে দেশে এই সংবেদনশীলতা তৈরি হবে, সে দেশে জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাস, মানুষের ওপর মানুষের নিপীড়নের ব্যবস্থা জায়গা করতে পারবে না।’আশার কথা, সমাজের ভেতর চাপা থাকা সংবেদনশীলতা ও চিন্তাশক্তি ক্রমে প্রকাশিত হচ্ছে। সংহতি তৈরি হচ্ছে মানুষে মানুষে, দেশে ও…বিস্তারিত

সুন্দরবন রক্ষা আমাদের জাতীয় দায়িত্ব

ভাড়াটে বিশেষজ্ঞ, বিজ্ঞাপনী সংস্থা আর অন্ধ কিছু অনুগত নিয়ে কি একটি সর্বনাশা প্রকল্প অব্যাহত থাকতে পারে? এটা ঠিক যে, মানুষকে সাময়িকভাবে অন্ধ করে রাখা যায়। উন্নয়নের কথা বলে, বিকাশের কথা বলে মানুষকে ফাঁকি দেওয়া যায় ততদিন পর্যন্ত যতদিন মানুষ নিজের স্বার্থ সম্পর্কে সচেতন না হয়, নিজের জীবন এবং সম্পদের অধিকার সম্পর্কে নিজের সচেতনতা তৈরি না হয়। বাজারে টোটকা ওষুধ বিক্রি করতে বিক্রেতারা অনেক রকম মিষ্টি মিষ্টি কথা বলে। সব অসুখ…বিস্তারিত

লড়াই–সংগ্রামে মাঠে থাকা মানুষটি

লড়াই–সংগ্রামে মাঠে থাকা মানুষটি আজ ৩১ জুলাই প্রকৌশলী শেখ মুহম্মদ শহীদুল্লাহর ৮৫ বছর পূর্ণ হলো। তিন দিন আগে ২৮ জুলাই তিনি ‘রামপাল চুক্তি ছুড়ে ফেলো, সুন্দরবন রক্ষা করো’ দাবি নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় অভিমুখে বিক্ষোভ মিছিলপূর্ব সমাবেশে সহস্রাধিক মানুষের সঙ্গে দাঁড়িয়েছিলেন। মিছিল উদ্বোধন করতে গিয়ে বললেন, ‘ছোটবেলায় মায়ের কাছে শুনতাম, জঙ্গলেই মঙ্গল। বড় হয়ে বুঝি এটা কত বড় সত্য। সুন্দরবন আমাদের মায়ের মতোই আশ্রয়। এটা আমরা যদি রক্ষা করতে না পারি ভবিষ্যৎ বাংলাদেশ আমাদের ক্ষমা…বিস্তারিত

বিশ্বাস-অবিশ্বাসের সীমা

বিশ্বাস-অবিশ্বাসের সীমা
প্রশ্নহীন আনুগত্য, পরম বিশ্বাস বা কারও ওপর পুরোপুরি ভর করে থাকা অনেক আরামদায়ক। বিশ্বাস ভরসা দেয়, আশ্রয় দেয়। অনেক উদ্বেগ থেকে বাঁচায়। নিরাপত্তা আর নিশ্চয়তার বোধ এনে দেয়। মানুষের এই বিশ্বাস ধর্মবিশ্বাস থেকে শুরু করে সরকার, নেতা, মা-বাবা, শিক্ষক, কোম্পানি, মিডিয়া, বস পর্যন্ত বিস্তৃত হতে পারে। শিশুরা যে নিশ্চিন্ত নিরুদ্বেগ থাকতে পারে, তার বড় কারণ তাদের কাছে দুনিয়ার অনেক তথ্য থাকে না, তা ছাড়া তারা পূর্ণ বিশ্বাস নিয়ে মা-বাবার আশ্রয়ে…
বিস্তারিত

Page 8 of 25