Development and market election

The present government of Bangladesh has proved itself to be the most powerful government of all times in the country’s history by establishing total control over all institutions. After the one-sided election of 2014, the manner in which it has monopolised power over the past five years has broken all past records. It has projected the picture of ‘development’ to justify its sweeping powers, control, oppression and repression.The development…বিস্তারিত

For life, nature and the country

The people have fought for this country. Hundreds and thousands were killed, but the enemies could not halt the struggle of the millions. The people of this country time and again rise up with the spirit of courage for their rights, for life, for nature and for their resources. The young and the old, men and women, regardless of race or religion, everyone rallies ahead. The Fulbari mass uprising is…বিস্তারিত

শিক্ষকের দায়, শিক্ষকতার দায়

পাকিস্তানি স্বৈরশাসনকালে, বিশেষত ষাটের দশকে মত প্রকাশ ও লেখালেখির জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের ওপর নানা হয়রানি করা হয়েছে, গোয়েন্দা নজরদারি থেকে আইয়ুব-মোনেম খানের এনএসএফের আক্রমণ—সবই হয়েছে। এর কারণেই বদরুদ্দীন উমর রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পদত্যাগ করে বিপ্লবী রাজনীতিতে যোগ দিয়েছিলেন। এই বিশ্ববিদ্যালয়েই পাকিস্তানি বাহিনীর আক্রমণ থেকে শিক্ষার্থীদের বাঁচাতে গিয়ে নিহত হয়েছিলেন শিক্ষক শামসুজ্জোহা। এই ষাটের দশকেই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষক আবু মাহমুদ এনএসএফ দ্বারা আক্রান্ত হয়েছিলেন। কিন্তু তাতে প্রতিরোধের ধারা স্তব্ধ…বিস্তারিত

শিক্ষকেরা বারবার রাস্তায় কেন?

একদিকে যখন বিভিন্ন কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা ছাত্রলীগ ও পুলিশের যৌথ নির্যাতনে ক্ষতবিক্ষত, অন্যদিকে তখন স্কুল-কলেজ-মাদ্রাসার অনাহারী শিক্ষকেরা অনশন করছেন ঢাকা শহরের কেন্দ্রস্থলে। শিক্ষার্থী ও শিক্ষক-দুজনেরই দাবি ন্যায্য কিন্তু সরকার গ্রহণ করেছে বৈরী পথ। শিক্ষার্থীদের জন্য নির্যাতন ও অপপ্রচার এবং শিক্ষকদের জন্য উপেক্ষা ও প্রতিশ্রুতি ভঙ্গ। ১৪ দিন ধরে ঢাকা শহরে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে কয়েক শ শিক্ষক আমরণ অনশনে আছেন, না খেয়ে রোদ-বৃষ্টিতে রাস্তায় পড়ে আছেন। বহু বছরের খুবই যুক্তিসংগত…বিস্তারিত

১৩ বছর পরে ফিদেলের দেশে

২০০৫ সালের পর আবার কিউবায় এসেছি। এর মধ্যে এ দেশে বেশ কয়েকটি বড় পরিবর্তনের ঘটনা ঘটেছে। ফিদেল গুরুতর অসুস্থ হয়েছেন, ক্ষমতা থেকে বিদায় নিয়েছেন, মৃত্যুবরণ করেছেন। সম্প্রতি রাউল কাস্ত্রো ক্ষমতা থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন। নতুন মুখ ক্যানাল গ্রহণ করেছেন কিউবা সরকারপ্রধানের দায়িত্বভার। ২০০৮-এর পর কয়েক দফা অর্থনৈতিক সংস্কার হয়েছে। গতবার হাভানায় ফিদেলের কোনো বড় ছবি, বিলবোর্ড, কিংবা তাঁর নামে নামকরণ দেখিনি। ভেবেছিলাম তাঁর মৃত্যুর পর হয়তো এসব ঘটনা ঘটবে। না, শহরে…বিস্তারিত

অর্থবছর পরিবর্তন করুন

সাধারণ বছর আর অর্থবছর এক নয়। দেশের হিসাব-নিকাশ, রাষ্ট্রীয় আয়-ব্যয় পরিকল্পনা অর্থবছর ধরেই হয়। বছরের শুরু ও শেষ পূর্বনির্ধারিত, কারও পরিবর্তন করার ক্ষমতা নেই, কিন্তু অর্থবছর পরিবর্তন করা যায়। গত কয়েক দশকে বহু দেশ প্রয়োজন অনুযায়ী এর পরিবর্তন করেছে। বাংলাদেশে কোনো পরিবর্তন হয়নি। এখনো ব্রিটিশ ও পাকিস্তান আমল থেকে পাওয়া অর্থবছরই অনুসরণ করা হচ্ছে। জুলাই মাসে অর্থবছর শুরু হয়, শেষ হয় জুন মাসে। সে জন্য প্রতিবছর জুন মাসে সেই অর্থবছরের…বিস্তারিত

উন্নয়নের ধারা ও বাজার নির্বাচন

দেশের সব প্রতিষ্ঠানের ওপর পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে বর্তমান সরকার বাংলাদেশের ইতিহাসে সবচেয়ে ক্ষমতাধর সরকার হিসেবে নিজেদের প্রতিষ্ঠা করেছে। বিশেষত ২০১৪ সালের একতরফা নির্বাচনের পর থেকে গত পাঁচ বছর এই ক্ষমতা একচ্ছত্রকরণ অতীতের সব রেকর্ড অতিক্রম করেছে। সরকার সর্বস্তরে একচেটিয়া ক্ষমতা ও নিয়ন্ত্রণ, দমন-পীড়নকে যৌক্তিকতা দেওয়ার চেষ্টা করেছে ‘উন্নয়ন’ যাত্রার ছবি উপস্থিত করে। বর্তমান সরকার উন্নয়নের যে ধারা জোরদার করেছে, সেই ধারা বা উন্নয়ন মডেল কোনো নতুন মডেল নয়; এটি…বিস্তারিত

সুন্দরবন রক্ষায় বৈশ্বিক সংহতি

বাংলাদেশে মানুষের সঙ্গে সঙ্গে সর্বপ্রাণ প্রকৃতি পরিবেশ বহুভাবে আক্রান্ত। লুণ্ঠনমুখী উন্নয়নধারা নিশ্চিত করতে মানুষের চিন্তা, মতপ্রকাশ, সংগঠন, সমাবেশসহ সব তৎপরতার ওপর ভয়াবহ নিপীড়নমূলক চাপ জারি রাখা হয়েছে। গুম–খুন, আটক, হয়রানি নতুন নতুন রেকর্ড করেছে গত কয়েক বছরে। রাজনৈতিক নানা বিতর্ক আর জাতীয় নির্বাচন নিয়ে হুলুস্থুলের আড়ালে চাপা পড়ে যাচ্ছে মানুষ ও প্রকৃতিবিনাশী নানা আয়োজন। দেশ ইতিমধ্যে নিপীড়িত উদ্বাস্তু রোহিঙ্গা মানুষের অবিরাম প্রবাহে বিপর্যস্ত। কিন্তু সুন্দরবনবিনাশী রামপাল প্রকল্প, দেশবিনাশী রূপপুর প্রকল্পসহ…বিস্তারিত

নিম্ন মজুরি এবং মালিকপক্ষের চার যুক্তি

আমাদের আশঙ্কাই সত্যি হলো। সরকার পোশাক খাতে নিম্নতম মজুরি নির্ধারণ করেছে মাত্র ৮ হাজার টাকা, যা বিভিন্ন শ্রমিকসংগঠনের দাবির ৫০ শতাংশ, মূল মজুরি বাড়ানো হয়েছে ১ হাজার ১০০ টাকা। আর এই বৃদ্ধির অজুহাতে আবার মালিকদের নানাবিধ সুবিধা আরও বাড়ানো হয়েছে। আগের অনেক কম মজুরির পরিপ্রেক্ষিতে ঘোষিত মজুরি বৃদ্ধি হিসেবেই হাজির করা হচ্ছে। কিন্তু নিম্ন মজুরি-নিম্ন উৎপাদনশীলতার ফাঁদ থেকে বাংলাদেশের শিল্প খাতকে মুক্ত করার জন্য দরকার ছিল একটি নতুন যাত্রা, অন্তত…বিস্তারিত

শহিদুল আটক ও সরকারের কাছে চারটি প্রশ্ন

ঘটনাটা আরও অনেক ঘটনার মতোই। রাতে কোনো সময় কিংবা ভোরে মাইক্রোবাসসহ দলে–বলে এসে ত্রাস সৃষ্টি, হুমকি-ধমকি ও জোরজবরদস্তি করে ডিবি পরিচয়ে তুলে নিয়ে যাওয়া। এরপর প্রথমে অস্বীকার করা, পুলিশের নির্লিপ্ত ভাব, কয়েক ঘণ্টা বা কিছুদিন পর গ্রেপ্তার দেখানো। এরপর রিমান্ড। বিশ্ববিখ্যাত আলোকচিত্রশিল্পী, শিক্ষক ও লেখক ডক্টর শহিদুল আলমের ক্ষেত্রেও এই মডেলেই কাজ হয়েছে। তবে অপহরণের দায়িত্বে নিয়োজিত ব্যক্তিদের সংখ্যা ছিল আরও বেশি। সিসিটিভি ভাঙা হয়েছে, বাড়ির প্রহরীদের বাঁধা হয়েছে। পরের…বিস্তারিত

Page 3 of 24